১৩ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং, বুধবার

মানসিক সমস্যা দূর করে যে পানীয়

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

মস্তিষ্কের সক্রিয়তার উপরে অনেকটাই নির্ভরশীল আমাদের যাবতীয় ভালো থাকা, মন্দ থাকা। মস্তিষ্ককে যতটা চাঙ্গা রাখবেন, আপনার সময়টা ঠিক ততটাই সুন্দর হবে। একটি পানীয় রয়েছে, যা আপনার মস্তিষ্ককে চাঙ্গা রাখতে সবচেয়ে বেশি সাহায্য করতে পারে।

ঠিক ধরেছেন, আর কিছু নয়, সেটি হলো চা। সকাল, বিকাল কিংবা সন্ধ্যা- চা ছাড়া জমেই না যেন। অতিথি আপ্যায়ন থেকে শুরু করে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা- এককাপ চা না হলে সবকিছুই বেমানান যেন। লিকার চা, গ্রিন টি বা দুধ চা যেভাবে খুশি আপনি চা খেতে পারেন। তবে লিকার চা খেলে উপকার বেশি পাবেন।

গবেষণায় উঠে এসেছে এই তথ্য। যারা প্রতিদিন তিনকাপ করে চা খান তাদের কগনিটিভ ফাংশন অন্যদের তুলনায় অনেক বেশি হয়। এছাড়াও বয়সকালে মস্তিষ্ক জনিত সমস্যা থেকেও অনেক দূরে থাকা যায়। স্নায়ু ঠিকমতো কাজ করে।

ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অফ সিঙ্গাপুর বলছে চায়ে দুধ, আদা, এলাচ, দারুচিনি যা খেতে ভালোলাগে, মিশিয়ে খেতে পারেন। এতে মস্তিষ্কের গঠন ঠিকঠাক হয়। তারা গবেষণা চালিয়েছেন চা খোর এবং চা খেতে ভালোবাসেন না এরকম মানুষের মধ্যে।

৩৬ থেকে ৬০ বছর বয়সীদের মধ্যে গবেষণা করে তারা দেখেছেন নিয়মিত চা খাবার ফলে তাদের কোনোরকম মানসিক সমস্যা নেই। চা খেলে ঘুম কম হয় এই তথ্যও তাদের মতে ভ্রান্ত। বলছেন ১০ বছর বয়স পেরোলেই একটু একটু করে চায়ের অভ্যাস করা ভালো।

এছাড়াও চায়ে রয়েছে আরও কিছু উপকারিতা-

১. লিকার চা আমাদের শক্তি দেয়। মনঃসংযোগে সাহায্য করে।

২. প্রতিদিন ব্ল্যাক টি খেলে ডায়াবেটিস, কোলেস্টেরলের মতো সমস্যা দূরে থাকে।

৩. গ্রিন টি খেলে ত্বকের উপকার হয়।

৪. প্রতিদিন চার কাপ গ্রিন টি খেলে ওজন কমে, কোলেস্টেরল লেভেল ঠিক থাকে, হজমের সমস্যা কমে।

 

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন